শিশুদের চা পান কতটা নিরাপদ?

উজ্জল বিশ্বাস : আমাদের অনেকেরই দিন শুরু হয় চায়ের কাপ হাতে। সকালে ঘুম থেকে উঠার পর এক কাপ চা অনেকের কাছে অমৃত সমান। আমরা বাসাবাড়ি যখন চা পান করি, তখন আমাদের আদরের সন্তান অনেক সময় চা পান করার আবদার করে।  বাববার বোঝানোর পরও তাদের নিবারণ করা কঠিন হয়ে পড়ে। তখন বাধ্য হয়েই তাদের হাতে তুলে দিই গরম চা।

সন্তানের হাতে চা তুলে দিয়ে আমরা নিজের অজান্তেই তাদের ক্ষতি করছি। কারণ চা বড়দের পানীয়। চা পানে বড়দের উপকার হলেও সমান উপকার শিশুদের হয় না। চা পানে শিশুদের ক্যালসিয়ামের শোষণ ব্যাহত হয়। এছাড়া শিশুর মস্তিষ্ক, পেশী, স্নায়ুতন্ত্র ও সাভাবিক বৃদ্ধি ব্যাহত হয়।

অনেক চিকিৎসক শিশুদের ঠাণ্ডা-কাশিতে অল্প পরিমাণে চা পানের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু চা পানের মধ্যদিয়ে শিশুর শরীরে ক্ষতিকর ক্যাফিন প্রবেশ করে।  চায়ের ক্যাফেইন উদ্দীপক হিসেবে কাজ করে। বিভিন্ন গাছের পাতা ও বীজ থেকে ক্যাফেইন তৈরি করা হয়। ক্যাফেইনকে ড্রাগ হিসেবেও ব্যবহার করা হয়। বেশি মাত্রার ক্যাফেইন শিশু ও বয়স্ক উভয়ের মধ্যেই সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। সমস্যা গুলোর মধ্যে রয়েছে নার্ভাসনেস, পেটের অসুখ, মাথাব্যথা, মনোযোগের সমস্যা, ঘুমের সমস্যা, হৃদস্পন্দন বেরে যাওয়া ও রক্তচাপ বৃদ্ধি পাওয়া। অনেক বেশি দুধ কিংবা বিস্কুটের সঙ্গে চা পান করলেও শিশুর উপর এর ক্ষতিকর প্রভাব  পড়ে।

Tea

তাই শিশুদের চা দেয়ার আগে কিছুটা সতর্ক হওয়া উচিত। এক্ষেত্রে চায়ের পাতা বেশি সময় ভেজানো উচিত না। চা বেশি গরম থাকলে শিশুর শিশুর ঠোট ও জিহ্বা পুড়ে যেতে পারে। তাই চা যেন বেশি গরম না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Show Buttons
Hide Buttons
%d bloggers like this: